হে তরুণ! যৌবনেই হজ করুন | মাওলানা সেলিম হোসাইন আজাদী

মাওলানা সেলিম হোসাইন আজাদী | শুক্রবার, ২৪ জুলাই ২০২০ | পড়া হয়েছে 68 বার

হে তরুণ! যৌবনেই হজ করুন | মাওলানা সেলিম হোসাইন আজাদী

ছোটবেলা থেকেই দেখে আসছি, আমাদের দেশ থেকে যেসব লোক মাবুদের ডাকে সাড়া দেওয়ার জন্য কালো গিলাফে ঢাকা সোনালি দরজার ঘরটিতে লাব্বাইকার গান গাইতে যান, তার অধিকাংশই বুড়ো বয়সের। আমাদের দেশের হাজীদের তুলনায় অন্যান্য দেশের হাজীরা বয়সে যথেষ্ট তরুণ। ‘যুববয়সে গুনাহ কর, বুড়ো হলে হজ কর’- এটি যেন আমাদের দেশে নিয়মে পরিণত হয়ে গেছে। আমরা হজে যাই যৌবনের পাপ মাফ করানোর জন্য আর উন্নত মুসলিম বিশ্বের তরুণরা হজে যান যৌবনে পাপ না করার শপথ নেওয়ার জন্য। তাই দেখা যায়, মুসলিম দেশের নাগরিক হয়েও হামেশা আমরা এমন অনেক কাজ করে ফেলি যা ভাবতেও গা শিউরে ওঠে। ‘সন্তান কর্তৃক বাবা-মা খুন, এ রকম বহু লজ্জাজনক কাজ আমাদের দ্বারা সংঘটিত হচ্ছে অহরহ। এর মূল কারণ একটাই- আমাদের তরুণরা হয়ে পড়েছে কোরআনবিমুখ। কোরআন বলছেন যখন তোমার সামর্থ্য আছে তখন হজ করে মাবুদের প্রেমরঙে নিজেকে রাঙিয়ে নাও। কিন্তু আমরা এমন এক সময় হজ করি যখন আমাদের ছানি পড়া চোখে আল্লাহর সব রং ধূসর মনে হয়। হজ যদি হয় মাবুদের ঘরে সাদা কাফন গায়ে পেঁচিয়ে প্রেমের মরা মরে লাব্বাইকার জলে ভেসে থাকা, তবে এ দুঃসাহসী প্রেমাভিযান তো তরুণদের জন্যই। আমাদের দেশে নানা যুব সমস্যা রয়েছে। চুরি, ডাকাতি, হত্যা, গুম, নারী নির্যাতন, ধর্ষণ, খুন, দুর্নীতিসহ হাজারো অপরাধের সঙ্গে জড়িত তরুণরা। এসব তরুণকে অপরাধের জীবন থেকে ফিরিয়ে কোরআনের জীবনে আনার ক্ষেত্রে হজের ভূমিকা অনন্য। তরুণরা হজে গিয়ে ধৈর্য, ভ্রাতৃত্ববোধ, নামাজ ও ত্যাগ কোরবানিতে অভ্যস্ত হয়ে আসতে পারলে দেশে হাজারো যুব সমস্যা কমে যেতে বাধ্য। তরুণদের হজে উৎসাহিত করার জন্য সর্বপ্রথম সরকার ও হজ এজেন্সিগুলোকে উদ্যোগী হতে হবে। তরুণদের জন্য বিশেষ ছাড়ে ‘আকর্ষণীয় হজ প্যাকেজ’-এর আয়োজন করা যেতে পারে।। যেমনটি উন্নত বিশ্বের মুসলিম দেশগুলোয় হয়। মসজিদের খতিব ও ইমামরা তাদের খুতবা ও আলোচনায় তরুণদের উৎসাহিত করে বিভিন্ন সময় বক্তব্য ও বিবৃতি প্রদান করতে পারেন। পরিশেষে বলতে চাই, সামর্থ্য থাকলে তরুণ বয়সে হজ সম্পাদন করাই উত্তম। আমাদের দেশের সামর্থ্যবান তরুণরা তাদের বৃদ্ধ পিতা-মাতাকে হজে পাঠান, নিজেরা হজ করেন না। তারা মনে করেন, যখন তারা পিতা-মাতার মতো বার্ধক্যের ভারে নুয়ে পড়বেন, পিঠের কুঁজোর কারণে প্রেমঘর কাবার দিকে চোখ মেলে তাকাতে পারবেন না, তখন ‘দায়মুক্তির’ হজ করে আসবেন। আমাদের তরুণরা জানেন না, বুড়ো হওয়ার কারণে হজের অনেক আহকামই সঠিকভাবে পালন করা যায় না। তাই বলতে চাই, হে তরুণ! যৌবনেই হজ করুন।

লেখক : মুফাস্সিরে কোরআন।
লেখাটি বাংলাদেশ প্রতিদিনে প্রকাশ হয়েছে দেখতে চাইলে এখানে ক্লিক করুন…

মন্তব্য...

comments